মোহনগঞ্জে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে স্বামী-শ্বশুর-শ্বাশুড়িসহ আটক ৪

রাজেশ গৌড় রাজেশ গৌড়

দুর্গাপুর,নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ৫:৪৬ পূর্বাহ্ণ, জুন ১১, ২০২০

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন (নেত্রকোনা)

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে খুকুমনি (২০) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে স্বামী, শ্বশুর, শ্বাশুড়ি ও দেবরসহ পরিবারের চার সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

উপজেলার তেুতলিয়া গ্রামের বাঘাপাড়ায় বুধবার (১০ জুন) দিবাগত রাত সাড়ে বারোটার দিকে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ওই গৃহবধূর স্বামী মোতাকাব্বির, শ্বশুর গোলাম রব্বানি, শ্বাশুড়ি ফজিলত নেছা ও দেবর মুনতাসিরকে আটক করে। স্বামীর ঘর থেকে খুকুমনির লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে গৃহবধূর বাবা তুরিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ওই চারজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তিন বছর আগে তেতুলিয়া গ্রামের রব্বানীর ছেলে মোতাকাব্বিরের সাথে বিয়ে হয় একই গ্রামের তরিকুল ইসলামের মেয়ে খুকুমনির। বিয়ের পর থেকে স্বামী–স্ত্রী দুজনেই ঢাকায় পোশাক কারখানায় চাকরি করতে চলে যায়। করোনার কারণে কয়েক মাস আগে বাড়িতে এসে পড়েন তারা । সম্প্রতি মোতাকাব্বির ঢাকা গিয়ে ফের কাজে যোগ দেন। কিন্তু করোনার ভয়ে আবার চাকরিতে যেতে আপত্তি জানায় খুকুমনি। এ নিয়ে তাদের দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হয়। এরই একপর্যায়ে বুধবার দিবাগত রাতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

খুকুমনির ভাই ফরশাদ জানায়, রাতে আশপাশের মানুষের চিৎকার শুনে আমরা দৌড়ে গিয়ে দেখি খুকুমনির লাশ বিছানায় পড়ে আছে। পুলিশকে খবর দেব, দেখি মোবাইলে ব্যালেন্স নেই। এমনকি পুলিশের নাম্বারও ছিল না। পরে ৯৯৯ এ কল করে জানালে তারা মোহনগঞ্জ থানায় বিষয়টি অবহিত করে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের আটক করে।

মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে দ্রুত গিয়ে অভিযুক্তদের আটক করা হয়। সেই সাথে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর বাবা হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদেরকে বিকালে আদালতে পাঠানো হয়েছে।