দুর্গাপুরের কোভিড-১৯ পজেটিভ দুইজন ব্যক্তির ব্যক্তিগত মতামত

রাজেশ গৌড় রাজেশ গৌড়

দুর্গাপুর,নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ১১:৩৬ অপরাহ্ণ, জুন ২২, ২০২০

সম্পাদনা-রাজেশ গৌড়..

দুইজন করোনা স্বেচ্ছাসেবক পজেটিভ ব্যক্তির মতামত

১.
হ্যা আমি কোভিড ১৯ পজিটিভ,, কেন বলব না? আমি তো কোনো দোষ করি নাই। আমি একজন করোনা সেচ্ছাসেবক, আপনাদের সেবা করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছি। লকডাউনে যখন আপনারা বাড়িতে বসে সময় কিভাবে কাটাবেন তা নিয়ে দুশ্চিতাগ্রস্হ ছিলেন তখন আমি হয়তো কোনো কোভিড ১৯ পজিটিভ ব্যাক্তির পাশে দাড়িয়েছি,লকডাউন কোভিড ১৯ পজেটিভ বাসাই খাবার দিয়ে এসেছি। বিভিন্ন হাস্পাতালে রক্ত নিয়ে হাজির হয়েছি কাওকে রক্ত দিয়ে বাঁচানোর জন্য,লকডাউনে আপনি যখন আপনার বাসাই বসে দুপুরের খাবার খাচ্ছেন তখন হয়ত আমাদের দুর্গাপুরের করোনা সেচ্ছাসেবক রা না খেয়ে কোন দরিদ্র কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে, হ্যা আমি কোভিড ১৯ পজিটিভ। এতে আমার কোনো লজ্জা বা ভয় বা আফসোস নাই। বরং আমি খুব গর্বিত। কারণ আমি শেষদিন পর্যন্ত কাজ করে এসেছি।এখন যদি মরেও যাই আমার আফসোস থাকবে না।কারণ আমি একজন করোনা সেচ্ছাসেবক হিসেবে যে শপথ নিয়েছিলাম তা পালন করে এসেছি। আমি যতদিন পেরেছি আপনাদের জন্যে মাঠে কাজ করেছি। যেদিন আমার মনে হল আমার নিজেরই স্যাম্পল পাঠানো দরকার, আমি সাথে সাথে স্যাম্পল পাঠিয়ে নিজেকে কোয়ারান্টাইনড করেছি। আমার পক্ষে যতদুর সম্ভব মানুষ এড়িয়ে চলেছি।নিজের বাড়িতেও আলাদা বাসাই একা থেকেছি আমারো পরিবার আছে, বাড়িতে বৃদ্ধ বাবা, মা আছে । তারপরো আজকের দিনটা আমি কোনোদিন ভুলব না।
আগামী বছর বেঁচে থাকলে এই স্মৃতি টা ভেসে উঠবে ফেবুর পাতায়।
!সবার মঙ্গল হোক।
সকলের কাছে দোয়া চাই
বেঁচে থাকলে আবার দেখা হবে।

২.
করোনায় পজেটিভ আসায় আমার অনেক কাছের মানুষদের দূরে সটকে যেতে দেখেছি, আবার অনেকের অবদান না বললেই নয়। যারা মানসিকভাবে, পারিপার্শ্বিক ভাবে হেল্প করেছেন তাদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করতে চাই। প্রথমে আমার স্কুলের প্রধান শিক্ষক স্যার Akm Yahia সার্বক্ষণিক খোজ রাখছেন। বন্ধু সহকর্মী Masum Billah Oviও ছোটভাই sushato, স্নেহাস্পদ Akash Talukder Akash তো ইতোমধ্যে কয়েকবার স্ব-শরীরে এসেছেন এটা ওটা নিয়েই। শ্রদ্ধেয় একাডেমিক সসুপারভাইজার স্যার Uas Nasirপরামর্শ দিয়েছেন। ছোট ভাই Noor Uddin প্রতিনিয়তই মানসিকভাবে উতসাহ দিয়ে যাচ্ছে। সিঙ্গাপুরে অধ্যয়নরত ছোটভাই Saimum Yasinতো পজেটিভ কে উড়িয়েই দিলো।,অধম্য মানসিক সাহসিকতা দিয়ে যাচ্ছে। কানাডা বসবাসরত নেত্রকোনার বড়ভাই Kabir Golamও ইউকে বসবাসরত শ্রদ্ধেয় বড় ভাই saror সুন্দর পরামর্শ দিয়েছেন যা মেনে চলার চেষ্টা করছি ।প্রিয় Rashiduzzaman Rajonভাই শুরু থেকেই স্পীহা,সাহস আর পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন অবিরত। চেয়ারম্যান কাকা শাহীনুর আলম সাজু খোজ খবর রাখছেন। প্রিয় স্যার বাবু বিশ্বজিৎ রংদী,, Shirajul Islam Polash, AU Alam, Dilu Ara Chowdhury, Nipa Debnath , মশিউর মিশু ,R.k. Sumon Md Monirujjaman Ripon, manto sir, অধ্যক্ষ ফারুক আহমেদ তালুকদার নিজে মর্মাহত হয়েও খোজ নিয়ে সাহসী হবার পরামর্শ দিয়েছেন Aminul Islam Babul. এছাড়া প্রিয় শিক্ষক Emdad Hossen Chowdhuryঅনেকটা মানসিক হেল্প করেছেন। এছাড়াও shohidul islam স্যার হোমিও মেডিসিন পাঠিয়েছেন এবং প্রতিদিনি খোজ নিচ্ছেন। ঢাকার বড়ভাইMahamod Hasan ভাই প্রথমদিন থেকেই খোজ নিচ্ছেন দুটি হোমিও মেডিসিন উনার পরামর্শেই নিচ্ছি। Jahidul Islam, Kamrul Hasan Kamrul, Emdadul Hauque. খোজ নিয়েছেন, মনের সাহস রাখতে জোর পরামর্শ দিয়েছেন। যার পরামর্শে প্রথমদিন নমুনা দিতে যাই উনাকেও ধন্যবাদ না দিলেই নয় প্রিয় Subrata Chakroborty, উনিও মানসিকভাবে স্ট্রং হতে আগে থেকেই উতসাহ উদ্দীপনা দিয়ে যাচ্ছেন। স্নেহাশিস Anisuzzaman Rony,Mir Anisul Haque R.M. Riyad Hasan, Touhidul Islam Nafis, Tiluttama Roy Rupkatha, Rajibul Islam Soysob, MD Majharul Islam Masud Rana,efat ahmed hridoy, tuhin sofiq, tanzid ahmed, tofayel ahmed,jubayer ahmed,ratul khan rudro, belayet hossen,rajib chowdory, sk alamin, sha alam kiron, tushar ahmed, Nahid hasan, gorge wacthing,ইত্যাদি আরো অনেক।
আমার সেচ্ছাসেবী সংগঠনের বড়ভাই Stalin Momen Ibn Sayed,Md Masud Sarkar Arfin Rasel Rajesh Gour , md soikot, Sokal Royমোঃ মোঃ মাহমুদুল হাসান শাওনও বন্ধু Shahan Ali, Sultan Mahmud Badhon, Emon Al Ishsk, Zia Ibn Shohid, Mohammad Azom, anjona Hajong, আরো অনেকে।
এছাড়াও যার কথা না বললেই নয় স্নেহাশিস Shafiqur Rahman সেই প্রথম দিন থেকেই অবিরত খোজ নিয়েই যাচ্ছে। আর স্নেহাস্পদ Rofiqul Islam Romjanবিভিন্নভাবে কো-অপারেট করছেই সেটা না হয় অপ্রকাশ্যই থাকুক। বিশেষত হাসপাতালের ডাক্তার আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার Tanjirul Islam Raihan স্যারের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে।
ধন্যবাদ উল্লেখিত নাম ছাড়াও সকল শুভাকাঙ্গীদের যারা বিভিন্নভাবে খোজ নিচ্ছেন, পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন। আসলে আমি আপনাদের জন্যই হয়ত এখনো সুস্থ্যভাবে আছি। আমি সম্পুর্ন সুস্থ্য আছি। ২-১ দিন পর পরবর্তী আবার নমুনা দেবো। যেন আর পজেটিভ না আসে সেজন্য দোয়া করবেন। সকলেই নিরাপদ দুরত্ববজায় রাখুন। সুস্থ্য থাকুন।

লেখাটুকু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে নেওয়া
.