দুর্গাপুরে প্রতিপক্ষের আঘাতে সহোদর দুই ভাই মারাত্মক জখম, টাকা ছিনতাই

রাজেশ গৌড় রাজেশ গৌড়

দুর্গাপুর,নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ১২:৩৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ২২, ২০২০

রাজেশ গৌড়,
শুটকি ব্যবসায়ি দুই সহোদর ভাইকে পথরোধ করে মারধরে রক্তাক্ত জখম ও টাকা ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনার অভিযোগ দেয়ার পর থেকে সোমবার (২২ জুন) দুপুর পর্যন্ত পাঁচ দিন হয়ে গেলেও এখনও মামলা রেকর্ডভূক্ত করেনি পুলিশ।

এমন দাবি করে নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের চারিয়ামাসকান্দা পূর্বপাড়া গ্রামের অভিযোগকারী দুলাল মিয়া বলেন, এর আগেও দুর্গাপুর থানায় চলতি বছরের মে মাসের সাত তারিখ তাদের বিরুদ্ধে জিডি করা হয়েছিল। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে গত বৃস্পতিবার (১৮ জুন) সকাল ৭টার দিকে উপজেলার সাতাশি বাজারে শমসের মড়লের পুকুরের পূর্বপাশে আমার দুই ভাই মো. কুদ্রত আলী (২৮) ও সাইদুল ইসলামকে (৪৮) গতিরোধ করে। পরে গতিরোধকারীরা তাদের মারধর, রক্তাক্ত জখম সহ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনার পর ওই দিন রাতেই দুর্গাপুর থানা অভিযোগ দায়ের করি।

এ অভিযোগের দুর্গাপুর থানার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আসাদুজ্জামান মুঠোফোনে জানান, ঘটের যাওয়া ঘটনার তদন্তে শতভাগ সত্যতা পেয়েছি। অসুস্থ থাকায় তদন্ত বিলম্বিত হয়েছে। আরও তদন্তের প্রয়োজন রয়েছে বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিজানুর রহমান জানান, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত চলমান রয়েছে। অবশ্যই এ ঘটনার সাথে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।

বর্তমানে দুই সহোদর ভাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আছে।
উল্লেখ্য, শুটকী ব্যবসায়ী কুদ্রত আলী ও সাইদুল ইসলাম দুই সহোদর ভাই ব্যবসার কাজে পার্শ্ববতী উপজেলার নাজিরপুর বাজারে যাওয়ার পথে সাতাশি বাজারের পূর্ব পাশে আসামাত্র চারিয়া মাসকান্দা পূর্বপাড়া গ্রামের মৃত. ফজু মড়লের পুত্রদ্বয় আতাউর রহমান, মো. আব্দুর রাশিদ, একই গ্রামের ইসহাক আলীর ছেলে মো. ইসব আলী, শাহিন মিয়া, আবু সিদ্দিক পূর্ব পরিকল্পিতভাবে রামদা দিয়ে কুদ্রত আলীর মাথায় কুপ দেয়। পাশেই থাকা অপর ভাই সাইদুল ইসলামকে এলোপাতারী মারধর করে তার সাথে থাকা তিন লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। তাঁদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ঘটনাস্থল থেকে হামলাকারীরা পালিয়ে যায় বলে অভিযোগের বিবরন থেকে এসসব তথ্য জানা গেছে।