সকাল ৮:০৯ | ২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৭ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

মোহনগঞ্জে মন্দির থেকে অর্থসহ মালামাল চুরি, ৮ঘন্টার মধ্যে আটক-২

প্রকাশিত: ৯:১৭ পূর্বাহ্ণ, মে ২৩, ২০২১

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন : নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলায় বড়তলী এলাকায় শম্ভুচান বাবার আখড়ায় তালা ভেঙ্গে চুরির অভিযোগ দেয়ার আট ঘন্টার মধ্যে অর্থসহ চুরিকৃত মালামাল উদ্ধার করেছে পুলিশ। এঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে এবং তাদের মধ্যে জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে থানায় আরও তিনটি মামলা রয়েছে।

রবিবার (২৩ মে) সন্ধ্যায় এতথ্য জানান, নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এ.কে.এম. মনিরুল ইসলাম।

আটককৃতরা হলো- মোহনগঞ্জের বড়তলী গ্রামের মৃত মির্জা গোলাম মোস্তফার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (২৪) ও পার্শ্ববর্তী সুনাগঞ্জের ধর্মপাশা থানাধীন মেওহরী গ্রামের মো. আলী আকবর হোসেনের ছেলে মো. রুবেল মিয়া (২৮)।

এর আগে গত শনিবার (২২ মে) দিনগত মধ্যরাত হতে ভোর পর্যন্ত কোন একসময় মন্দিরে চুরির ঘটনায় উপজেলার বড়তলী গ্রামের মৃত সুবোধ বণিকের ছেলে রূপন বণিক আজ (রবিবার) সকালে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে চুরিকৃত মালামালের মধ্যে রয়েছে, দানবাক্স থেকে আড়াই হাজার টাকা, ১টি হারমোনিয়াম, ১টি কাঁসার ঝান ও ১টি খাঁসার ঘন্টা ও পূঁজায় ব্যবহৃত কাঁসার বাসন-কুষন।

নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) এ.কে.এম. মনিরুল ইসলাম জানান, গোপনতথ্যের ভিত্তিতে জাহাঙ্গীরকে আটকের জন্য মোহনগঞ্জ থানার কর্মকর্তা হ পুলিশ সদস্যদের নিয়ে অভিযানে গেলে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। পরে তথ্যপ্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে মোহনগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা সড়কে ধর্মপাশা থানা এলাকা থেকে হারমোনিয়াম ও নগদ ৮৭৮ টাকাসহ আটক করা হয়।

পরবর্তীতে জাহাঙ্গীরের দেয়া তথ্যে ধর্মপাশা থানাধীন মেওহরী এলাকা থেকে ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী রুবেলকে আটক করা হয় এবং তার কাছ থেকে মন্দিরের চুরিকৃত ১টি কাঁসার ঘণ্টা ও ১টি কাঁসার ঝাঁন উদ্ধার করা হয়। মালামালসহ আটক দুজন থানা হেফাজতে রয়েছে এবং এবিষয়ে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান তিনি।

  • এই বিভাগের সর্বশেষ