শেখ কামালের জন্মদিনে পৌরবাসীর জন্য কাউন্সিলর কামরুল হাসান জনি’র অনন্য উদ্যোগ

রাজেশ গৌড় রাজেশ গৌড়

দুর্গাপুর,নেত্রকোনা

প্রকাশিত: ৭:০৫ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০২১
সেলফিতে কাউন্সিলর এস এস কামরুল হাসান জনি।

রাজেশ গৌড়

নেত্রকোনা দুর্গাপুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এস এম কামরুল হাসান জনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ সন্তান, ক্রীড়া সংগঠক, মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের ৭২তম জন্মদিনে পৌরবাসীর জন্য পৌর মেয়র মো. আলা উদ্দিনের কাছে একটি প্রস্তাবনা পেশ করেন।

প্রস্তাবনা গুলো হলো

১। দুর্গাপুর পৌর সীমানায় যে নতুন শিশু জন্মগ্রহণ করবে অর্থাৎ নবীন শিশুর জন্ম নিবন্ধন এর জন্য পৌর পরিষদে আসা হলে মেয়র এর পক্ষ থেকে ১ টি করে ফলজ,বনজ ও ঔষধি মোট ৩ টি উন্নত জাতের বৃক্ষচারা উপহার স্বরুপ প্রদান করার জন্য ।

২। পৌরসভার কোন নাগরিক বা তার পরিবার যদি পৌর কর নিয়মিত পরিশোধ করে থাকেন, তবে ঐ পরিবারের কোন সদস্যের মৃত্যুতে যদি পরিবার প্রয়োজন বোধকরে অর্থাৎ আগ্রহী হয়ে তবে মৃত ব্যক্তির দাফন খরচ বা শ্বশানের সৎকার্য বাবদ পৌরসভা তাৎক্ষণিক একটি নির্দিষ্ট অংকের টাকা প্রদান করা।

৩। পৌরসভার আরজ আলী কবরস্থান পরিচ্ছন্ন করে আলোক সজ্জা ও পানীয় জলের ব্যবস্থা করা।

৪। সীমাহীন ভোগান্তি নির্মূলের জন্য নিত্যদিনের বর্জ্য পৌরসভার বাড়ি বাড়ি গিয়ে সংগ্রহ করা পৌরসভার পক্ষ হতে বিনা টাকায়।

মেয়র মো. আলা উদ্দিন আন্তরিকতা ও উৎসাহের সহিত প্রস্তাবগুলি গ্রহণ করেন ও বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেন। বর্তমানে ৪ নং ওয়ার্ডের প্রত্যেকের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বর্জ্য সংগ্রহ করা হবে। যা পর্যায়ক্রমে প্রতিটি ওয়ার্ডেও শুরু হবে।

সেলফিতে কাউন্সিলর এস এম কামরুল হাসান জনি। এ ব্যাপারে কাউন্সিলর কামরুল হাসান জনি বলেন ” কাজগুলো খুব বৃহৎ নয়, একেবারেই ক্ষুদ্র তথাপি দুর্গাপুর পৌরসভার জন্য এক অনন্য নজির হবে। পৌরবাসীর সৌভাগ্য এমন মহৎ হৃদয়ের নগরপিতা পেয়েছি, যিনি গঠনমূলক পরামর্শ সর্বদাই প্রাধান্য দেন।”

এ বিষয়ে পৌর মেয়র মো. আলা উদ্দিন বলেন , কামরুল হাসান জনি পৌরবাসীর জন্য যে প্রস্তাবনাটি দিয়েছে তা খুবই একটি ভালো প্রস্তাবনা। আমি ইতিমধ্যে পৌর কর্মকর্তাদের এই প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছি।